Thursday , February 22 2018
Home / ইসলাম / মেয়ে না দেখে বিয়েঃ বাসর রাতে যা দেখলেন যুবক

মেয়ে না দেখে বিয়েঃ বাসর রাতে যা দেখলেন যুবক

এক যুবতীর রূপের কথা শুনে না দেখে বিয়ে করে এক যুবক। স্ত্রীকে বাসর ঘরে গিয়ে প্রথম দেখেন যুবক। কিন্তু স্ত্রীর ঘোমটা খুলতেই দেখেন তাঁর বউ দেখতে কালো।  মনের দুঃখে স্ত্রীর কাছে আর ফিরে আসেন না। নাম তার আমের বিন আনাস। এই অবস্তা দেখে ঘর থেকে বেরিয়ে পরেন যুবক। স্ত্রী তাঁর কাছে গিয়ে বলেন তুমি যা অপছন্দ করছ তাতেই তোমার হয়তো মঙ্গল।অতঃপর তিনি স্ত্রীর কাছে যান এবং রাত্রি যাপন করেন।

কিন্তু দিনের বেলা তাঁর স্ত্রীর  মুখের দিকে তাকাতে তাঁর মন খারাপ হয়ে যাই।  তিনি বাড়ি ছেড়ে বিদেশ চলে যান। এদিকে বাসর রাতে যে তাঁর স্ত্রীর  গর্ভ ধারন করেছে  তা তিনি জানেন না। আমের ভিনদেশে ২০ বছর কাটান।

২০ বছর পর আমের নিজ দেশে ফিরে আসেন। বাড়ির কাছে এসে এক মসজিদে  ঢোকেন। ঢুকেই দেখেন এক সুদর্শন যুবক পবিত্র কোরআনের মর্মস্পর্শী দরস পেশ করছেন। তাঁর বিশাল মসজিদ ভরা মানুষ তাঁর কথা শুনছে। তাঁর এই দরস শুনে তাঁর অন্তর বিগলিত হয়। আমের লোকদের কাছে এই গুণী মুফাসসিরের নাম জানতে চাইলে লোকেরা বলেন, ‘ইনি ইমাম মালেক।’

আমের আবার জানতে চাই এনার পিতার নাম কি , লোকে বলে এই এলাকারই আমের বিন আনাস নামের এক ব্যক্তির ছেলে। তিনি ২০ বছর আগে বাড়ি ছেড়ে চলে যান। আর কোন দিন ফিরে আসে নি। আমের ইমাম মালেক এর কাছে এসে বলল তুমি কি আমার তোমার বাড়ি নিয়ে যাবে। কিন্তু আমি তোমার মায়ের অনুমতি ছাড়া তোমার ঘরে প্রবেশ করবো না। আমি আপনার ঘরের দরজাই দাড়িয়ে থাকবো।

আপনি ভিতরে গিয়ে আপনার মাকে বলবেন দরজাই একজন লোক দাড়িয়ে আছে। তিনি আমায় বলেছিলেন তুমি যা অপছন্দ কর তাতে তোমার মঙ্গল আছে।

এই কথা ইমাম মালেক এর মা শুনেই বললেন তুমি দৌঁড়ে যাও সন্মানের সাথে তাকে ভিতরে নিয়ে আসো। তিনি তোমার বাবা। দীর্ঘদিন  দূর দেশে থাকার পর দেশে ফিরে এসেছে। এই হলেন সেই গুনবতি মা ইমাম মালেক (রহ.)-এর মতো সন্তান গড়ে তোলার কারিগর। তাই রূপবতী নারী দ্বারা নয়, গুণবতী নারীদের মাধ্যমেই পৃথিবী আলোকিত হয়।

About author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading...
%d bloggers like this: