Sunday , May 27 2018
Home / Entertainment / জয়ার নিজের মুখের কথা- হোস্টেলের দিদিরা………………।।

জয়ার নিজের মুখের কথা- হোস্টেলের দিদিরা………………।।

জয়ার নিজের -তখন আমার নয়। তখন আমার ফোর। ক্লাস ফোর, হোস্টলে থাকতাম,টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রতিমা বোধহয় সেখানেই হয়। না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না। কত বড় ঠাকুর,কত বড় পুজা। ঢাকা থেকে অনেকটা দূরের সেই জায়গায় হোস্টেলে কেটেছে আমার মেয়েবেলা।

হোস্টল মানে তো বুঝতেই পারছেন। বড়দের দিদিগিরি চলতো পুরোদমে। এইট, নাইনের মেয়েরা আমাদের মানে ছোটদের চেলা বানাতো।চেলা বুঝলেন তো? ওরা অর্ডার করবে, আর আমরা ওদের ফাইফরমাশ খাটবো। ছোট ছিলাম, অতো তো বুঝতাম না। দিদিরা যা বলতো চুপচাপ করে দিতাম। আর আমাকে দেখেও বেশ ইনোসেন্ট মনে হতো সবার। আমাকে দিয়ে সে সময় কী কী করাতো, সে সব গল্পই বলবো আপনাদের।

পূজোর সয়য়হোস্টেলের দিদিরা আমাকে দিয়ে চুরিও করিয়েছে। হ্যাঁ, চুরি। আমাকে দিয়ে ঠাকুরের ভোগ চুরি করাতো। ফল, মিষ্টি, অন্নভোগ যা দেওয়া হত ঠাকুরকে, তাই চুরি করতে বলতো। আর আমি করতাম কি, ওদের কথা শুনে ওই সব খাবার চুরি করতাম। আমরা কয়েক জন বন্ধু মিলে চেলাগিরি করতে গিয়ে ওই সব করতাম।

আরও ছোট ছিলাম যখন সকলের কোলে চড়েই পুজো কেটে যেত। ঈদ, পুজো সব মিলিয়ে এ সময়টা বাংলাদেশে উৎসবের মেজাজ। ছোট থেকেই এমনটা দেখছি আমি। তবে একটা কথা জোর গলায় বলতে পারি, ছোট থেকে আজ পর্যন্ত কখনও মুসলিম বলে দুর্গাপুজোয় আনন্দ করতে আমার অসুবিধে হয়নি। মুসলিম বলে দুর্গাপুজোয় দাওয়াত পাইনি এমন হয়নি। মুসলিম বলে দুর্গা-মাকে প্রণাম করতে যেতে কখনও আমাকে আটকায়নি কেউ।

About author

Check Also

বিচার চেয়ে ফেসে গেলেন শূনীল গাভাস্কার।

১৬ ই মার্চের প্রেমাদাসার বাংলাদেশ এবং শ্রীলংকার খেলার মদ্ধে সাকিব এর টাইগার সূলভ আচরণ দেখে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading...
%d bloggers like this: